The Basics about Cryptocurrency

The Basics about Cryptocurrency


Cryptocurrency comes under many names. You have probably read about some of the most popular types of cryptocurrencies such as Bitcoin, Litecoin, and Ethereum. Cryptocurrencies are increasingly popular alternatives for online payments.

Before converting real dollars, euros, pounds, or other traditional currencies into ₿ (the symbol for Bitcoin, the most popular cryptocurrency), you should understand what cryptocurrencies are, what the risks are in using cryptocurrencies, and how to protect your investment.

What is cryptocurrency? A cryptocurrency is a digital currency, which is an alternative form of payment created using encryption algorithms. The use of encryption technologies means that cryptocurrencies function both as a currency and as a virtual accounting system. To use cryptocurrencies, you need a cryptocurrency wallet. These wallets can be software that is a cloud-based service or is stored on your computer or on your mobile device. The wallets are the tool through which you store your encryption keys that confirm your identity and link to your cryptocurrency.

What are the risks to using cryptocurrency? Cryptocurrencies are still relatively new, and the market for these digital currencies is very volatile. Since cryptocurrencies don’t need banks or any other third party to regulate them; they tend to be uninsured and are hard to convert into a form of tangible currency (such as US dollars or euros.) In addition, since cryptocurrencies are technology-based intangible assets, they can be hacked like any other intangible technology asset. Finally, since you store your cryptocurrencies in a digital wallet, if you lose your wallet (or access to it or to wallet backups), you have lost your entire cryptocurrency investment.

Follow these tips to protect your cryptocurrencies:

Look before you leap! Before investing in a cryptocurrency, be sure you understand how it works, where it can be used, and how to exchange it. Read the webpages for the currency itself (such as Ethereum, Bitcoin or Litecoin) so that you fully understand how it works, and read independent articles on the cryptocurrencies you are considering as well.

Use a trustworthy wallet. It is going to take some research on your part to choose the right wallet for your needs. If you choose to manage your cryptocurrency wallet with a local application on your computer or mobile device, then you will need to protect this wallet at a level consistent with your investment. Just like you wouldn’t carry a million dollars around in a paper bag, don’t choose an unknown or lesser-known wallet to protect your cryptocurrency. You want to make sure that you use a trustworthy wallet.

Have a backup strategy. Think about what happens if your computer or mobile device (or wherever you store your wallet) is lost or stolen or if you don’t otherwise have access to it. Without a backup strategy, you will have no way of getting your cryptocurrency back, and you could lose your investment.

প্রতিটি মোবাইলে ৫ টি দরকারি apps । mobile apps

 

মোবাইলের ৫ টি দরকারি apps

আমরা যারা মোবাইল ব্যবহার করি তাদের ৫ টি apps অনেক দরকারি। যেই ৫ টি apps ছাড়া আপনারা মোবাইল চালিয়ে কোন মজা পাবেন না। আসুন তাহলে আমরা যেনে নেই ৫ টি apps সম্পর্কে।

আমরা যদি Google playstore না চালাতে পারি তাহলে আমারা আমাদের মোবাইলে দরকারি apps গুলো নামাতে পারবো না।

Google Playstore এহ হাজার হাজার apps রয়েছে। আপনারা Google playstore থেকে Game, social media apps, income apps, education apps, আরো ভিবিন্ন দরনের apps free তে নামিয়ে আমরা ব্যাবহার করতে পারবো।

আপনারা playstore ছাড়া আপনাদের মোবাইলে তেমন ভালো কোন apps Install করতে পারবেন না।

 

২) YouTube apps

বর্তমান মোবাইলে YouTube নেই এমন মানুষ পাওয়া যায় না। কোটি কোটি মানুষ বর্তমান youtube ব্যাবহার  করে ভিবিন্ন কারনে। youtube এর মাধ্যমে আমরা এমন কিছু করতে পারি যেটা কোন এপস এর মাধ্যমে করা সম্বপ নয়

আমরা YouTube এর ভিডিও দেখে অনেক কিছু রান্না করে থাকি, আমরা YouTube এর ভিডিও দেখে ভিবিন্ন দরনের শিক্ষা অর্জন করতে পারি।  YouTube দেখে আমরা আমাদের আজাইরা সময়টা কাটিয়ে দিতে পারি।

youtube এর মাধ্যমে আপনারা চাইলে ইনকাম ও করতে পারবেন। YouTube ইনকামের জন্য অন্য তম একটি apps হিসেবে দরা হয়ে থাকে। YouTube এর পেইমেন্ট করে adsense. আপনারা যদি আপনাদের YouTube চনেলটি adsense এর সাথে connect করতে পারেন তাহলে আপনাদের ইনকাম শুরু হবে।

৩) Facebook

বর্তমান Facebook apps টি সবার মোবাইলে থাকে এটা হয়তো আমরা সবাই জানি।  এশিয়া মহাদেশে সবচেয়ে বেশি চালিয়ে থাকেন ফেসবুক। এশিয়া মহাদেশের সব মানুষের মোবাইলেই ফেসবুক apps টি রয়েছে।

আপনারা Facebook এর মাধ্যমে আপনাদের ব্যবসার করতে পারবেন এবং ভিবিন্ন পন্য বিক্রি করতে পারবেন।  ফেসবুকের মাধ্যমে আপনারা যেই কোন দেশের যেই কোন মানুষের সাথে contract কতে পারবেন এটা হহ আপনারা সবাই জানেন।

বর্তমান ফেসবুকের মাধ্যমে অনেক মানুষ তাদের নতুন নতুন বন্ধু বানাচ্ছে, আবারা অনেকেই ফেসবুকের মাধ্যমে প্রেম করে থাকি। ফেসবুকের ভিবিন্ন দরনের ফেসালিট রয়েছে যেটা আপনারা হয়তো বুজতে পেরেছেন

৪) imo

imo apps টি এশিয়া মহাদেশের মানুষই বেশি ব্যাবহার করে থাকে। playstore, youtube, Facebook এই apps গুলোর মতো জনপ্রিয় নয় imo apps টি।

imo apps টি একমাত্র call করে কথা বলার জন্য বানানো হয়েছেন। তাহলে বুজতেই পারছেন আপনার প্রতিদিন এর কাজের জন্য ইমু এপস কতটা গুরুত্বপূর্ণ

কিন্তু বর্তমান ইমু এর ভিতরর ভিবিন্ন দরনের option রাখা হয়েছে। আপনারা অবশ্যই ইমু apps টি ব্যাবহার করে দেখতে পারেন।

৫)  What’s up

দুনিয়ার অন্য তম একটি apps হিসেবে what’s up কে বলা হয় কারন টি কোন সাধারন apps নয় । what’s up apps টি আমাদের এশিয়া মহাদেশের অনেক মানুষ ব্যাবহার করে থাকেন, কিন্তু আমাদের এশিয়া মহাদেশের থেকে ইউরোপ দেশের মানুষ বেশি ব্যাবহার করেন whats up apps টি সেটা হয়তো আপনারা জানেন

what’s up একটি security apps. এই what’s up এর মাধ্যমে অনেক বড় বড় লেনদেন হয়ে থাকে। what’s up apps এর মাধ্যমে আপনার যেই কোন personal জিনিস শেয়ার করতে পারেন কোন সমস্যাই হবে না।

what’s up apps টি কয়েক কোটি মানুষ ব্যাবহার করে থাকেন। তাহলে বুজতেই পারছেন এতো গুলো মানুষ এই apps টি কেনো ব্যাবহার করেন।

৫ টি apps সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন

উপরের ৫ টি apps ব্যাবহারে থেকে বেশি important একটি gamil। আপনারা Gmail ছাড়া playstore চালু করতে পারবে না এবং মোবাইলের ও ভিবিন্ন দরনের জিনিস চালু করতে পারবেন না। তাই আপনারা আপনাদের মোবাইলে সবার প্রথমে একটি Gmail ব্যাবহার করবেন।

আশা করি আপনারা উপরের সবগুলো বিষয় বোজতে পেরেছে। ৫ টি apps একটি মোবাইলের জন্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ এবং উপকারি।